ঢাকা, রোববার   ২২ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪২৯

বইমেলায় জামশেদ নাজিমের ‘জোছনার কফিন’

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:১৫, ১৮ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৭:১৭, ১৮ মার্চ ২০২১

বইমেলায় জামশেদ নাজিমের ‘জোছনার কফিন’

বইমেলায় জামশেদ নাজিমের ‘জোছনার কফিন’

সময়ের হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে জীবন। দীর্ঘ বালিয়ারি ডিঙিয়ে খরস্রোতা নদীর স্রোতে আশা-আকাঙ্ক্ষা স্বপ্নেরা বাসা বাধে। কোনটি স্বপ্ন চূড়ায় পৌঁছে যায়, কোনোটি ম্লান হয় ফিকে চাঁদের আলোতে। মৃত্যু প্রায় এই স্বপ্নগুলোকে কফিন বদ্ধ করছেন প্রজন্মের তরুণ কবি জামশেদ নাজিম। কালি কলমে বলতে চেয়েছেন না বলা অনেক কথা। চৌষট্টি কবিতায় কবি মনের এলোমেলো ভাবনাগুলো তুলে ধরেছেন ‘জোছনার কফিন’-এ।

এবারের একুশে বইমেলায় আসছে সাংবাদিক জামশেদ নাজিমের লেখা প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘জোছনার কফিন’। কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশ করেছে অনিন্দ্য প্রকাশ। দুঃখ, হতাশা, দহন অথবা বিশ্বাসঘাতকতা কিংবা ভালোবাসা থেকে প্রাপ্ত আঘাত এসবের সামাজিক চিত্র তুলে ধরা হয়েছে এ গ্রন্থটিতে। আজ বৃহস্পতিবার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে বইমেলার প্রথম দিন থেকে অনিন্দ্য প্রকাশ স্টল প্যাভিলিয়ন-৫-এ পাওয়া যাচ্ছে বইটি।

কাব্যগ্রন্থ সম্পর্কে জামশেদ নাজিম বলেন, আমার লেখা প্রতিটি বই একটি প্রধান চরিত্রের বিভিন্ন দিকে ছায়া ফেলতে ফেলতে এগিয়ে যায়। ‘জোছনার কফিন’ কাব্যগ্রন্থটিও তাই। এখানে দুঃখ, হতাশা, দহন অথবা বিশ্বাসঘাতকতা কিংবা ভালোবাসা থেকে প্রাপ্ত আঘাত এসবের সামাজিক চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। বইটি পাঠকের অভিজ্ঞতায় নতুন কিছু মাত্রা যোগ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

জামশেদ নাজিম একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাংবাদিক হিসেবে কাজ করছেন। চ্যালেঞ্জিং এ পেশার পাশাপাশি লেখালেখিও ধরে রেখেছেন তিনি। তার প্রথম উপন্যাস ‘একটি গল্পের গল্প’ ও দ্বিতীয় উপন্যাস ‘গল্পটির বাকি অংশ’। সাংবাদিক হিসেবে সমাজের বিচিত্র অভিজ্ঞতা তার উপন্যাসগুলোতে স্থান পায়। বিশেষ করে ২০২০ সালে প্রকাশিত রহস্য উপন্যাস ‘আবেগের জলডুবি’ বাস্তবতার নিরিখে লেখার জন্য বাংলাদেশ ও কলকাতায় পাঠকপ্রিয় হয়েছে।

জামশেদ নাজিমের প্রথম কাব্যগ্রন্থটির মুখবন্ধতে কলকাতার কবি ও কথা সাহিত্যিক রুদ্র গোস্বামী লিখেছেন, ভালোবাসা থেকে প্রাপ্ত আঘাত, ব্লেডের ধারের মতো মানুষের হৃদয়কে কাটে। ক্ষতবিক্ষত করে। মানুষকে মন খারাপের দ্বীপে টেনে নিয়ে গিয়ে একা করে দেয়। নাজিম জানেন মন খারাপ ওষুধে কমে না, কথা কখনো কখনো ওষুধের থেকে ভালো কাজ করে। হতাশা কী? আঘাত অথবা বিশ্বাসঘাতকতা থেকে উত্তরণের পথই বা কোথায়? ভালোবাসা অথবা বিষাদ, অথবা আত্মহত্যার মতো মানসিক রোগ-এর সমাধান মানুষের হৃদয় থেকে কতটুকু দূরে? ‘জোছনার কফিন’ কাব্য সংকলনে কবি জামশেদ নাজিম মূলত সেইসব সামাজিক কথাদেরই অনুসন্ধান করতে চেয়েছেন। এই গ্রন্থে কবি মূলত সেইসব কথাদের স্থান দিতে চেয়েছেন যা পাঠককে একটা বোধের ঠিকানায় নিয়ে দাঁড় করিয়ে বলতে পারে, হেরে যাওয়ার থেকে অধিক ভালো ঘুরে দাঁড়ানো।

দুই বাংলার জনপ্রিয় কবি রুদ্র গোস্বামী আশা প্রকাশ করে বলেছেন ‘জোছনার কফিন’ পাঠক মনে শুশ্রূষার মতো করে জায়গা করে নেবে তার নিজস্ব গুণে। এবং আশা রাখি এই কাব্য সংকলনটি লিখেই নাজিম থেমে থাকবেন না। আরও অনুভব আরও প্রেরণা নিয়ে নতুন নতুন কাব্য সংকলনে ঋদ্ধ করবেন আমাদের সাহিত্য-ভুবন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়