ঢাকা, রোববার   ২২ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪২৯

বসন্তের কোকিলদের খোঁজে সাংসদ বাবেল

প্রকাশিত: ২২:০২, ২২ আগস্ট ২০২১   আপডেট: ২২:০৯, ২২ আগস্ট ২০২১

আমাদের দেশের স্থানীয় ও জাতীয় নির্বাচনী মৌসুমে আমরা অনেক নতুন নতুন প্রার্থী দেখতে পাই। কোনো কোনো ক্ষেত্রেতো দেখা যায় ১৫-২০ জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করে বসে আছেন। কিছু তরল টাকার জোরে এদের আশেপাশে কিছু মানুষ জনও জুটে যায় দ্রুতই। বলতে গেলে, এটি আমাদের দেশে রাজনৈতিক সংস্কৃতির একটি নিয়মিত ব্যপারই হয়ে গেছে। কিন্তু নির্বাচনের পর থেকে ঠিক পরবর্তী নির্বাচনের আগ পর্যন্ত এদেরকে আর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না।
 
এই কথাগুলো বলার কারণটা বলি। করোনা মহামারীর প্রকোপে সারা পৃথিবীর মানুষই ক্ষতিগ্রস্ত। আমাদের দেশেও সবাই শারীরিক, মানসিক বা অর্থনৈতিক কোনো না কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। এই সময়টার শুরু থেকেই আমাদের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বেশিরভাগ জাতীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীরাই সবসময় জনগণের পাশে ছিলেন এবং আছেন। যার যার অবস্থান থেকে সবাই সাধ্যমতো কাজ করেছেন, এখনো করে যাচ্ছে।। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে বলতে পারি, এই মহামারীর সময়ে অন্যান্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি পরিশ্রম আমাকে করতে হচ্ছে। সবসময় সবার খোঁজ রাখা, সাহায্য সহযোগিতা করা এবং দ্রুত দায়িত্ব পালন করা উপরন্তু মানসিক চাপতো আছেই । করোনা কিন্তু মানুষের পরিচয় দেখে আক্রমণ করেনা, আমরাও মানুষ। আমাদের পরিবারও এই সময়টা কি পরিমাণ ঝুঁকির মধ্যে, তা হয়তো আপনাদের অনুমেয়ই।
 
এই সময়ের দিকে তাকিয়ে আমরা সহজেই দেখতে পাই, প্রয়োজনের সময় জনগণের পাশে আসলেই কারা থাকে। আমরা রাজনীতিবিদরা মানুষের জন্য কাজ করি। আমাদের মানুষজনই আমাদের পরিবার। দীর্ঘদিন দিন একসাথে থাকা উঠা বসা, সুখে দুঃখে একে অপরের পাশে দাঁড়ানো এসব আমাদের জীবনের অংশ। চাইলেও হয়তো এসব থেকে আর কোনোদিন দূরে থাকতে পারবোনা, পরিবার থেকে দূরে কি যাওয়া যায়?
 
সামনে আবার নির্বাচন আসবে, রাজনৈতিক অরাজনৈতিক লোকজনের সমাগমে মাঠ গরম হবে। তখন আমরা আবার সেই বসন্তের কোকিলদের দেখতে পাবো, যারা এখন শীতনিদ্রায় রয়েছেন। সেসময় এসে হয়তো আমাদের অনেক ভূল ধরবেন, অভিযোগ করবেন, জ্ঞান দিবেন আর জনগণকে দিবে আশ্বাসের ফুলঝুরি। কিন্তু বাস্তবতার মুখোমুখি সময়ে তাদের কখনোই খুঁজে পাওয়া যায়নি, ভবিষ্যতেও পাওয়া যাবেনা এ কথা আমি লিখে দিতে পারি। আমার জনগণ, আমার পরিবারের সবার প্রতি অনুরোধ থাকবে এই মৌসুমী সুবিধাবাদী, বিভ্রান্তকারীদের চিনে রাখতে, যেনো ভবিষ্যতে এদের বয়কট করতে দু'বার ভাবতে না হয়।
 
লেখক : ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল।
সংসদ সদস্য, ময়মনসিংহ-১০ (গফরগাঁও)
সর্বশেষ
জনপ্রিয়